ঠাকুরগাঁওয়ে ১৩ বছরের কিশোরী ধর্ষিত

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৩ বছরের কিশোরী ধর্ষিত

মোঃ ইসলাম ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা জামালপুর ইউ পি মহেশপুর গ্রামে ১৩ বছরের কিশোরি ধর্ষিত হয়েছেন। স্থানীয় এলাকাবাসী এবং ধর্ষিতার বড় বোন বলেন আমার বাবা খাদেমুল কে উকিল দেওয়ার সুবাদে সে প্রায় সময় আমাদের বাড়িতে যাতায়াত করত। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৭/০৫/২০১৮ তারিখ রোজ বৃহস্পতিবার আমার ছোটবোন আমাকে এসে বলে গর্ভে ধারণ করা বাচ্চা কোথায় নষ্ট করা হয়। তার বড় বোন তাৎক্ষণিক বিষয়টি তার স্বামী মোঃ আখতারুল কে জানান আখতারুল বিষয়টি শুনার পরে স্থানীয় এক ডাক্তারের কাছ থেকে ডেলিভারি চেক করার জন্য বেষ্ট লেডি চেক নামক একটি কাঠি কিনে নিয়ে যান এবং পরীক্ষা করে দেখেন যে তার বোন গর্ভবতী। পরবর্তীতে বিষয়টি এলাকাবাসীর মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। খাদেমুল এর সাক্ষাৎকার নিতে তার বাড়িতে গেলে সে কৌশলে বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। এবং সাংবাদিককে টাকা দিয়ে মেনেজ করার চেস্টা করতে চায় ধর্ষকের ভাতিজা মোঃ আলমগির । কিশোরীর চাচা মোঃ আলম বলেন বিষয়টি একপ্রকার আপোষ মীমাংসার কথা হয়েছে গোপনে ৭০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা জানালেন ধর্ষিতার চাচা আলম এবং আলম বলেন আমরা এক লক্ষ টাকার ঊর্ধে চেয়েছি হয় টাকা দিবে না হয় খাদেমুল ওই মেয়েকে বিয়ে করবে। কিশোরীর বোন ফারজিনা বলেন আমি খাদিমুল এর উপযুক্ত বিচার চাই। কিশোরীর পিতা মোঃ ফজর আলী ভারাক্রান্ত হৃদয়ে বলেন আমি গরিব মানুষ কোথায় থেকে যে কি হয়ে গেল আমি ভেবে পাচ্ছিনা। স্থানীয় এলাকাবাসীর আরো বলেন ধর্ষক খাদেমুল প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াছে। এ বিষয়ে ১০ নং জামালপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম চৌধুরীর কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন দুই পক্ষের কেউ আমার সাথে যোগাযোগ করেন নাই। ঠাকুরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ মুঠোফোনে জানান এবিষয়ে থানায় কোনো অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে তাৎক্ষণিক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।