Thursday , 21 October 2021
জেনে নেই হার্ট অ্যাটার্কের আশঙ্কা কি কারণে হয়?

জেনে নেই হার্ট অ্যাটার্কের আশঙ্কা কি কারণে হয়?

লাইফস্টাইল ডেস্ক : কথায় কথায় রেগে যান। প্রচণ্ড রাগ করেন। এমন দেড় হাজার মানুষের ওপর ৩৬ বছর ধরে গবেষণা করে দেখা গেছে, এদের বেশিরভাগেরই অল্প বয়সে প্রেশার বাড়ে, ইস্কিমিয়া হয়, হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা বেড়ে যায়৷ আবার রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকে এমন ১২ হাজার ৯৮৬ জন নারী–পুরুষকে গবেষণা করে ২০০০ সালে সার্কুলেশন পত্রিকায় প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যাঁদের রাগ খুব বেশি তাঁদের মধ্যে ইস্কিমিক হার্ট ডিজিজের আশঙ্কা স্বাভাবিক মানুষের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ ও হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা তিন গুণ৷ আর এখানে স্বাভাবিক মানুষ বলতে একেবারে মাটির মানুষ নয় অল্পস্বল্প রাগেন এমন মানুষের কথা বলা হয়েছে। মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা রাগ কমানোর কিছু পরামর্শ দিয়েছেন: *১. আপনার যে রাগ বেশি সেটাই প্রথমে বুঝতে হবে। আর এজন্য আপনি নিজেই দায়ী। আর আপনি যে কারণে রাগেন, সেই একই কারণে অনেকেই মাথা ঠান্ডা রাখতে পারেন। *২. আপনি মনে-প্রাণে ঠিক করুন রাগ কমাবেন। *৩. কোন কোন অবস্থায় রেখে যান তা বুঝুন। ওই অবস্থা যেন তৈরি না হয় সেই চেষ্টা করুন। আর এজন্য যদি কিছুটা স্যাক্রিফাইসও করতে হয় করবেন। শরীর, মানসিক শান্তি, সম্পর্ক সব রক্ষায় কিছু তো ছাড় দিতে হবে। *৪. চেষ্টা করেও কোনো পরিস্থিতি এড়াতে না পারলে মনে মনে প্রতিজ্ঞা করুন, যা-ই ঘটুক আপনি দেখে যাবেন, রাগবেন না৷ এমনকি কথাও বলবেন না যাতে পরিস্থিতি আরও জটিল হয়। *৫. রেগে গেলেও অস্থির হয়ে উঠবেন না। সময় দিন। অন্যান্য আবেগের মতো রাগ পড়তেও কিছু সময় লাগে। এমন ক্ষেত্রে ধৈর্য ধরতে হবে। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো মুখ বন্ধ রাখতে হবে। সম্ভব হলে ওই স্থান থেকে সরে যতে হবে। কিছুক্ষণ হাটাহাঁটি করতে পারেন।  *৬. আর হঠাৎ প্রচণ্ড রাগ দূর করতে মনে মনে পছন্দের কিছু করতে পারেন। তবে এমন করতে হলে কিছুটা প্যাকটিস প্রয়োজন।