Breaking News
Home / বাংলা নিউজ / কমলাপুরে অচল পাম্প স্টেশনের এক মেশিন ঠিক করল ডিএসসিসি |

কমলাপুরে অচল পাম্প স্টেশনের এক মেশিন ঠিক করল ডিএসসিসি |



অনলাইন ডেস্ক:

ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে বুঝে পাওয়া কমলাপুর পাম্পিং স্টেশনের ৩টি পাম্প মেশিনের মধ্যে একটি সচল করা সম্ভব হয়েছে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের তত্ত্বাবধানে আজ সোমবার বিকেলে এই স্টেশনের একটি পাম্প মেশিন চালু করা সম্ভব হয়েছে।

গত মাসের ২৬ তারিখে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে অন্যান্য যান-যন্ত্রপাতির সাথে কমলাপুর ও ধোলাইখাল পাম্পিং স্টেশন দুটিও বুঝে নেয় ডিএসসিসি। তখন থেকে এই অচল পাম্পিং স্টেশনগুলো সচল করতে কাজ করে আসছিল ডিএসসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ। তারই ধারাবাহিকতায় আজ বিকেলে কমলাপুর পাম্পিং স্টেশনের ৩টি পাম্পি মেশিনের মধ্য থেকে একটি পাম্প মেশিন সচল করা সম্ভব হলো। ৫ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন এই পাম্প মেশিনটি প্রতি সেকেন্ডে পাঁচ হাজার লিটার পানি সেচতে পারে। এখনো অচল থাকা বাকী পাম্প মেশিন দু’টোর প্রতিটির ক্ষমতাও ৫ কিউসেক করে।

এছাড়া হস্তান্তরিত ধোলাইখালের অচল পাম্পিং স্টেশনের তিনটি পাম্প মেশিনই সচল করতে কাজ করছে ডিএসসিসি। ধোলাইখাল পাম্পিং স্টেশনেও ৩টি পাম্প মেশিন রয়েছে। এই পাম্প মেশিনগুলোর প্রতিটির ক্ষমতা ৭.৪ কিউসেক অর্থাৎ প্রতিটি মেশিন আলাদা আলাদাভাবে প্রতি সেকেন্ডে ৭.৪ হাজার লিটার পানি সেচতে পারে।

এছাড়াও গত ২ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া দক্ষিণ সিটির জিরানী, শ্যামপুর ও মান্ডা খাল এবং সেগুনবাগিচা ও পান্থপথ বক্স কালভার্ট হতে গত ৫২ দিনে ১ লক্ষ ৬ হাজার টন পলি মাটি ও ২৬ হাজার ৯২০ টন বর্জ্য অপসারণ করা হয়েছে।



সার্বিক বিষয়ে ডিএসসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এয়ার কমডোর মোঃ বদরুল আমিন বলেন, ওয়াসার কাছ থেকে খাল ও বক্স কালভার্ট বুঝে পাওয়ার পর থেকে মেয়র মহোদয়ের নির্দেশনা মোতাবেক আমরা তিনটি খাল ও দুটি বক্স কালভার্ট পরিষ্কার কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছি। নগরবাসীকে জলাবদ্ধতা হতে মুক্তি দিতে পুরোদমে আমাদের এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। কমলাপুর পাম্পিং স্টেশনের তিনটি পাম্প মেশিনের মধ্যকার একটি মেশিন সচল করতে পারা অবশ্যই এই কার্যক্রমের ইতিবাচক দিক।

উল্লেখ্য যে, গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর ঢাকা ওয়াসার কাছ থেকে এক সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে ডিএসসিসি ১১টি খাল ও ৩টি বক্স কালভার্ট বুঝে নেয়। এস এ সময় ওয়াসার কাছ থেকে প্রয়োজনীয় যান-যন্ত্রপাতি ও কিছু অবকাঠামো বুঝে নিলেও পাম্পিং স্টেশন দুটি অচল ছিল। একই সাথে এ সময় বুঝে পাওয়া ২৫ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন ৫টি মিনি পাম্প মেশিনও অচল রয়েছে।

ওয়াসার কাছ থেকে খাল ও বক্স কালভার্ট বুঝে নেওয়ার পর নগরবাসীকে জলাবদ্ধতা হতে মুক্তি দিতে ডিএসসিসি এ বছরের ২ জানুয়ারি থেকে তিনটি খাল ও দুটি বক্স কালভার্ট থেকে বর্জ্য অপসারণ ও চ্যানেল পরিষ্কার কার্যক্রম শুরু করে। আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে ঢাকাবাসীকে জলাবদ্ধতার হাত থেকে মুক্তি দিতে ডিএসসিসি পুরোদমে এই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

-অনলাইন ডেস্ক