Home / বাংলা নিউজ / ক্রিকেটা’রদের ‘খেলব না’ ভাব ঠেকাতে চুক্তিতেই শক্ত গিঁট দেবে বি’সিবি’

ক্রিকেটা’রদের ‘খেলব না’ ভাব ঠেকাতে চুক্তিতেই শক্ত গিঁট দেবে বি’সিবি’


অনলাইন ডেস্ক:

ঢাকা, ২২ ফেব্রুয়ারি – ‌একজন ক্রিকেটা’রকে আন্তর্জাতিক আঙিনায় তুলে আনতে কত শ্রম-সময় ব্যয়, কত বি’নিয়োগ করতে হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বি’সিবি’)। কিন্তু এই ক্রিকেটা’ররাই যখন তারকা হয়ে যান, তখন তাদের মধ্যে চলে আসে একটা’ ‘ডেম কেয়ার’ ভাব।

কেউ টেস্ট খেলতে চান না, কেউবা সময়ে অ’সময়ে ছুটি চেয়ে বসেন। সাকিব আল হা’সানই যেমন দেশের হয়ে টেস্ট খেলার চেয়ে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছেন আইপিএলের লোভনীয় চুক্তিতে। শ্রীলঙ্কার বি’পক্ষে টেস্ট সিরিজ বাদ দিয়ে আইপিএলে খেলতে যাবেন বলে বি’সিবি’র কাছ থেকে ছুটিও নিয়ে নিয়েছেন।

ক্রিকেটা’ররা ছুটি চাইলে তাদের আটকে রাখার উপায় নেই, মনে করেন বি’সিবি’ সভাপতি নাজমুল হা’সান পাপন। কাউকে জোর করিয়ে খেলি’য়ে লাভ হয় না, মা’ঠের পারফরম্যান্স তো আর চাপ দিয়ে বের করে আনা যায় না। তাই ভবি’ষ্যতেও কোনো ক্রিকেটা’রকে জাতীয় দলে খেলতে বাধ্য করা হবে না, আজ (সোমবার) বি’সিবি’র বোর্ড সভা শেষে গণমা’ধ্যমের সামনে এমনটা’ই জানিয়েছেন পাপন।

আরও পড়ুন : জাতীয় বি’শ্ববি’দ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত

তবে ভবি’ষ্যতের কথা ভেবে নতুন একটি সিদ্ধান্তও নিয়ে ফেলেছেন বোর্ড কর্তারা। পাপন জানালেন, সামনে নতুন এক চুক্তিতে নিয়ে আসা হবে ক্রিকেটা’রদের। সেই চুক্তিতে স্পষ্ট লেখা থাকবে, কে কোন ফরমেটে খেলতে আগ্রহী, জাতীয় দল ফেলে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি লি’গে খেলতে যেতে চাইবেন কি না-এমন নানা বি’ষয়।



বি’সিবি’ সভাপতি জানান, যদি কেউ টেস্ট বা কোনো ফরমেট খেলতে না চায়, তবে আগেভাগেই জানিয়ে দিতে হবে। সেটা’ হলে ওই বলের চুক্তিতে তাকে রাখাই হবে না। আর যদি কোনো ক্রিকেটা’র দেশের খেলাকে প্রাধান্য দেবেন, এই চুক্তিতে সই করেন, তবে তাকে ছাড়াও হবে না।

পাপন বলেন, ‘আমরা আজ এই ব্যাপারে আলোচনা করেছি যে, ওদের (জাতীয় দলের ক্রিকেটা’রদের) সাথে একটা’ চুক্তি তৈরি করব। ওই চুক্তিতে আরও নতুন কিছু জিনিস যুক্ত হবে। ওখানে পরিষ্কারভাবে লেখা থাকবে, যে কে কোন ফরম্যাট খেলতে চায়, তাদেরকে বলতে হবে। এটা’ও জানতে হবে, তাদের যদি ওই সময়ে অ’ন্য কোনো খেলা থাকে, তাহলে সেখানে খেলবে নাকি দেশের হয়ে খেলবে? এই চুক্তিতে যারা সই করবে, তাদের আমরা যেতে দিব না।’

বি’সিবি’ প্রধান যোগ করেন, ‘এখন ব্যাপারটা’ ওপেন। আগে এটা’ ছিল ব্যক্তির ওপরে, এখন আমরা কাগজে-কলমে লি’খিত নিয়ে নিব। কারো বলার কিছু থাকবে না যে, খেলতে দিল না কিংবা জোর করে যাচ্ছে। এসব বলার কিছু থাকবে না। যে খেলবে না, সে খেলবে না।’

সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল
এন এ/ ২২ ফেব্রুয়ারি