Thursday , 21 October 2021

সিরাজগঞ্জ-৬ উপনির্বাচন ;মনোনয়ন দৌড়ে ভাই-বোন

সিরাজগঞ্জ, ২০ সেপ্টেম্বর-সিরাজগঞ্জ-৬ সংসদীয় আসন শূন্য হওয়ায় বেড়েছে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের দৌড়ঝাঁপ। ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগ ও দলের সহযোগী সংগঠনের নেতারা ওই আসনে দলীয় মনোনয়ন পেতে কেন্দ্রেীয় নেতাদের কাছে যোগাযোগ করছেন। বিগত দিনে দলের সংকটময় মুহূর্তে ভূমিকা রেখেছেন এমন সব তথ্য তুলে ধরে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতাদের কাছে যাচ্ছেন তারা। অন্যদিকে সিরাজগঞ্জ-৬ আসনের রাজনীতির মাঠ ধরে রাখতে অনুসারীদের দিয়ে ব্যানার, পোস্টার স্থাপন করেছেন তারা। তবে সবার আলোচনা ছাড়িয়ে কেন্দ্রে এবং স্থানীয় জনগণের মুখে মুখে আছে বাংলা একাডেমির প্রথম মহাপরিচালক প্রয়াত মযহারুল ইসলামের দুই সন্তান- সাবেক সংসদ সদস্য চয়ন ইসলাম ও তার বোন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক মেরিনা জাহান কবিতা। দুই ভাই-বোন মনোনয়ন চেয়ে অন্যদের মতোই বিভিন্ন জনের কাছে যাচ্ছেন।

সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, আসনজুড়ে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ছড়াছড়ি থাকলেও মযহারুল ইরলাম পরিবারের একজনকে বেছে নিতে পারে আওয়ামী লীগ। অর্থাৎ সংসদ সদস্য হওয়ার অভিজ্ঞতা এবং স্থানীয় রাজনীতিতে যোগাযোগ থাকার কারণে পুনরায় মনোনয়ন পেতে পারেন চয়ন ইসলাম। অন্যদিকে জাতীয় সংসদে নির্বাচিত নারী সংসদ সদস্য বৃদ্ধি, নারীর ক্ষমতায়নের চিন্তা থেকে মনোনয়ন পেতে পারেন মেরিনা জাহান কবিতা।

নিজেকে ওই আসনে যোগ্য দাবি করে মন্তব্য করেছেন চয়ন ইসলাম। তিনি আমাদের সময়কে বলেন, ‘সিরাজগঞ্জ-৬ আসনের স্বপন ভাইয়ের মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে আমাকে মনোনয়ন দিলে আমি তা পূরণ করতে পারব বলে আমি বিশ্বাস করি। তা ছাড়া সিরাজগঞ্জ-৬ আসনের অন্তর্ভুক্ত প্রতিটি গ্রামের মানুষ আমাকে চেনে, জানে।’ এই আসনে তার বোন মেরিনা জাহানের মনোনয়ন প্রত্যাশার বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মনোনয়ন চাইতেই পারে। এটিকে আমি স্বাভাবিকভাবেই দেখি।’

অন্যদিকে অধ্যাপক মেরিনা জাহান কবিতা আমাদের সময়কে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশ ছাড়া আমি মনোনয়ন ফরম তুলব না। তিনি যদি মনে করেন আমি ওই আসনের জন্য যোগ্য তা হলেই আমি মনোনয়নপ্রত্যাশী। নেত্রী শেখ হাসিনার কথার বাইরে একচুলও নড়ব না।’

জানা গেছে, শাহজাদপুরের সাবেক পৌর মেয়র হালিমুল হক মিরু, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে পিপি সাবেক আইন সচিব শেখ আবু সালেহ মোহাম্মদ দুলালের ছোট ভাই অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আবদুল হামিদ লাবলু, যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মিল্কভিটার সাবেক পরিচালক ড. সাজ্জাদ হায়দার লিটন, শাহজাদপুর পৌরসভার বর্তমান মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী এবং প্রয়াত সংসদ সদস্য হাসিবুর রহমান স্বপনের পরিবার থেকে একজন মনোনয়ন প্রত্যাশা করতে পারেন। তবে তার পরিবারের কেউ এখন মুখ খুলছেন না। প্রয়াত স্বপন এমপির তিন মেয়ে এবং স্ত্রী তাদের কেউ রাজনীতিতে যুক্ত নন। তার স্বজনদেরও সে অর্থে রাজনীতিতে সক্রিয় থাকতে দেখা যায়নি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা সিরাজগঞ্জ-৬ আসনের সংসদ সদস্য মো. হাসিবুর রহমান স্বপনের মৃত্যুতে গত ২ সেপ্টেম্বর আসনটি শূন্য ঘোষণা করেছে জাতীয় সংসদ সচিবালয়। শূন্য আসনে উপনির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার কর্মকর্তারা জানান, আসন শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ হওয়ায় ভোটের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ৮৬তম কমিশন বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপন করা হতে পারে। সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে কমিশন বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।

সংবিধান অনুযায়ী, কোনো আসন শূন্য হওয়ার পরবর্তী নব্বই দিনের মধ্যে নির্বাচন সম্পন্ন করতে হয়। তবে দৈবদুর্বিপাক থাকলে অতিরিক্ত নব্বই দিন সময় নিতে পারেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি)। ২০২০ ও ২০২১ সালে বেশ কিছু নির্বাচনে করোনার প্রকোপ বাড়ায় এ ক্ষমতার ব্যবহার করেছেন সিইসি কেএম নূরুল হুদা। তবে বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় আর অতিরিক্ত সময় নিতে চায় না কমিশন।

২ সেপ্টেম্বর সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি হাসিবুর রহমান স্বপন মারা গেছেন।

সুত্রঃ আমাদের সময়

আর আই