গফরগাঁওয়ে নির্মাণ হবে আরো ১৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক |

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের উদ্যোগে ও প্রচেষ্টায় বিভিন্ন গ্রামে আরো ১৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এতে প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের হাজারো মানুষ বিনামূল্যে সরকারি স্বাস্থ্য সেবা পাবেন। ইতিমধ্যে স্থানীয় জমি দাতাদের কাছ থেকে প্রতিটি ক্লিনিকের জন্য ৮ শতাংশ জমি প্রাপ্তি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ প্রস্তাবনা প্রেরণ করেছেন। কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ও বরাদ্দ পেলেই ক্লিনিকগুলোর নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

জানা যায়, উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে ৫০টি কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাস্থ্য সেবাদান কার্যক্রম চালু আছে। আরো ১৬টি গ্রামে কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। গ্রামগুলো হলো-গফরগাঁও থানার সালটিয়া ইউনিয়নের রৌহা, চরআলগী ইউনিয়নের চর কামারিয়া ও নয়াপাড়া, বারবাড়িয়া ইউনিয়নের পাকাটি ও লক্ষণপুর, গফরগাঁও ইউনিয়নের হাতিখলা, পাগলা থানার লংগাইর ইউনিয়নের ফরিদপুর, টাঙ্গাব ইউনিয়নের বারইহাটি বটতলা, পাচাহার, বাঘের বাজার ও বাশিয়া, নিগুয়ারী ইউনিয়নের দর্গাভিটা ও নিগুয়ারী, পাইথল ইউনিয়নের গুবরী, দত্তেরবাজার ইউনিয়নের নতুন বাজার ও বারইগাঁও গ্রাম। এ ছাড়া রাওনা ইউনিয়নের চংবিড়ই ও বারবাড়িয়া ইউনিয়নের উত্তন্নপাড়া গ্রামে আরো দুটি ক্লিনিক নির্মাণ কাজ সমাপ্তির পথে। ক্লিনিকগুলো চালু হলে প্রত্যন্ত অঞ্চলের হাজারো অসহায় মানুষ বিনামূল্যে সরকারি স্বাস্থ্যসেবার আওতায় আসবেন।

গফরগাঁও আলতাফ গোলন্দাজ ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক গোলাম মোহাম্মদ ফারুকী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাস্থ্যসেবা তৃণমূল পর্যন্ত পৌঁছে দিতে সারা দেশে গ্রাম পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ করেছেন। এতে অবহেলিত অসহায় দরিদ্র মানুষ বিনামূল্যে সরকারি স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ মাইনউদ্দিন খান বলেন, সংসদ সদস্য ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল মহোদয়ের প্রচেষ্টায় এই উদ্যোগ বাস্তবায়ন হলে গফরগাঁওয়ের স্বাস্থ্যসেবার চিত্র পাল্টে যাবে। স্থানীয় দাতাদের কাছ থেকে প্রতিটি ক্লিনিকের জন্য ৮ শতাংশ করে জমি প্রাপ্তি নিশ্চিত হয়ে প্রস্তাবনা প্রেরণ করা হয়েছে। আশা করি দ্রুতই কাজ অগ্রসর হবে। 


-Kalerkantho