Saturday , 10 December 2022

সাকিবের নজরকাড়া পারফরম্যান্সে বাংলা টাইগার্সের দাপুটে জয়

দারুণ এক জয়ে আবুধাবি টি-টেন লিগের ষষ্ঠ আসর শুরু করেছে বাংলাদেশি মালিকানাধীন দল বাংলা টাইগার্স। আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে নবাগত দল নিউইয়র্ক স্ট্রাইকার্সের মুখোমুখি হয়েছিল বাংলা টাইগার্স, যে ম্যাচে দলকে জেতানোর ক্ষেত্রে অলরাউন্ড নৈপুণ্য আর বিচক্ষণ অধিনায়কত্বে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন সাকিব। সাকিব নেতৃত্বে থাকবেন, সে ঘোষণা আগেই দিয়েছিল দল। এবার বাংলা টাইগার্সের আইকন ক্রিকেটারও তিনি। তবে একাদশে জায়গা হয়নি স্কোয়াডের আরও দুই বাংলাদেশি ক্রিকেটার নুরুল হাসান সোহান ও মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টস ভাগ্য ছিল না সাকিবের পক্ষে। নিউইয়র্ক স্ট্রাইকার্সের দলপতি কাইরন পোলার্ড টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান সাকিবদের। নির্ধারিত ১০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলা টাইগার্সের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৩১ রান। দলের পক্ষে অর্ধশতক হাঁকান ক্যারিবীয় ওপেনার এভিন লুইস। ২২ বলের মোকাবেলায় ২টি চার ও ৭টি ছক্কায় ৫৮ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন তিনি। এছাড়া কলিন মুনরো ১৭ বলে করেন ৩০ রান। ৭ বলে ১০ রান আসে হজরতউল্লাহ জাজাইয়ের ব্যাট থেকে। বেন কাটিং ৬ বলে ১১ এবং ৭ নম্বরে নামা সাকিব ৬ বলে ১৪ রান করে অপরাজিত থাকেন। সাকিবের ইনিংসে ছিল একটি চার ও একটি ছক্কা। এছাড়া ২ বলে ১ রান করেন বেনি হাওয়েল, উইকেটরক্ষক ব্যাটার জো ক্লার্ক গোল্ডেন ডাকের শিকার হন। নিউইয়র্ক স্ট্রাইকার্সের পক্ষে ওয়াহাব রিয়াজ ও রবি রামপাল দুটি করে এবং জর্ডান থম্পসন একটি উইকেট শিকার করেন। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে প্রথম ওভারেই সাকিবের সামনে পড়ে নিউইয়র্ক স্ট্রাইকার্স। টি-টেনে যেখানে একটি ডেলিভারি, একটি ডট বল অনেক দামি, সেখানে সাকিব চারটি ডট বল করেন, শিকার করেন মোহাম্মদ ওয়াসিমকে। প্রথম ওভারে মাত্র ২ রান খরচ করেন তিনি। তৃতীয় ওভারে নিজের দ্বিতীয় ও শেষ ওভার করতে আসেন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-২০ অধিনায়ক। সে ওভারে মাত্র ৫ রান দেন তিনি। মোট ২ ওভারে একটি উইকেট খরচের বিনিময়ে সাকিব খরচ করেন মাত্র ৭ রান। সাকিবের এই আঁটসাঁট বোলিংয়ে ভীষণ চাপে পড়ে যায় প্রতিপক্ষ। পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক ব্যাটার আজম খানের ১৩ বলে ৩৪ রানের ঝড় অবশ্য ম্যাচে জিইয়ে রাখে দলকে। এরপর অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড মাত্র ১৯ বলে ৪৫ রান করেন। ৩টি চার ও ৪টি ছক্কা হাঁকিয়ে ছিলেন অপরাজিত। তবে শেষপর্যন্ত দলকে জেতাতে পারেননি। নির্ধারিত ১০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১২ রান দাঁড়ায় নিউইয়র্ক স্ট্রাইকার্সের সংগ্রহ। মাথিশা পাথিরানা ও রোহান মোস্তফা দুটি করে উইকেট পেলেও সাকিবের মতো মিতব্যয়ী ছিলেন না কেউই। সাকিব যেখানে ওভারপ্রতি মাত্র ৩.৫ রান খরচ করেছেন, সেখানে বাকি সবার ইকোনমি রেট ছিল দশেরও বেশি। শেষপর্যন্ত ১৯ রানের দাপুটে জয় নিয়ে আসর শুরু করে সাকিবের নেতৃত্বাধীন বাংলা টাইগার্স। বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে desh71 সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।