Saturday , 10 December 2022

ভারতকে নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত হার্দিক পান্ডিয়া

ভারতীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে আলোচিত বিষয় এখন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট। সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর ক্রিকেটের এই ক্ষুদ্রতম সংস্করণে ভারতের দলকে ঢেলে সাজানোর পরামর্শ দিচ্ছেন অনেকেই। হার্দিক পান্ডিয়া। ছবিঃ গেটি ইমেজসসর্বশেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের পারফরম্যান্স সমর্থকদের মন জয় করে নিতে পারেনি। সেমিফাইনালে খেললেও সেমির পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে রোহিত শর্মার দল। সেমিতে ওঠার পথটাও খুব বেশি মসৃণ ছিল না। অনেক বাধাবিপত্তি পেরিয়ে সেমিতে উঠেছিল তারা।আইসিসির টুর্নামেন্টে ভারতের ব্যর্থতার গল্পটা পুরোনোই। সর্বশেষ ২০১৩ সালে আইসিসির কোনো টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। এরপর থেকে প্রায় প্রতিবারই প্রায় সকল টুর্নামেন্টে ফেভারিট হিসেবে খেলতে গিয়ে খালি হাতে ফিরতে হয়েছে ভারতকে। তবে এবারের বিশ্বকাপ শেষে টি-টোয়েন্টি দলকে নতুন করে সাজানোর পক্ষে মত দিচ্ছেন সাবেকরা। দলের অধিনায়ক হিসেবেও নতুন কাউকে দেখতে চান সবাই। রোহিত শর্মার অধিনায়কত্ব কিংবা ধীর গতির ব্যাটিং কোনোকিছুই পছন্দ হচ্ছে না সাবেকদের। তাদের মতে, টি-টোয়েন্টি দলের নতুন অধিনায়ক হিসেবে হার্দিক পান্ডিয়াকেই দায়িত্ব দেওয়া উচিত। বিশেষ করে রবি শাস্ত্রী এবং সুনীল গাভাস্কারও মত দিয়েছেন হার্দিকের পক্ষেই। হার্দিক নিজে অবশ্য এবিষয়ে বেশ ইতিবাচক। জানিয়েছেন, অধিনায়কের দায়িত্ব পেলে গ্রহণ করে নেবেন দু হাত ভরে।সকলের মুখে নিজের প্রশংসা শুনতে ভালোই লাগে হার্দিকের। তার মতে, ‘মানুষ যখন কথাবার্তা বলে (অধিনায়কত্ব নিয়ে) তখন ভালোই লাগে। কিন্তু যতক্ষণ পর্যন্ত বিষয়টি আনুষ্ঠানিক হচ্ছে না ততক্ষণ পর্যন্ত আপনি এ বিষয়ে কিছু বলতে পারবেন না।’ হার্দিক পান্ডিয়াকে অধিনায়ক হিসেবে পছন্দ রবি শাস্ত্রীর। ছবিঃ গেটি ইমেজসতিনি আরও বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে গেলে আমার বিষয়টি পরিষ্কার। আমি যদি একটি ম্যাচ অথবা একটি সিরিজের দায়িত্বে থাকি আমি দলকে আমার মত করেই নেতৃত্ব দিব, যেভাবে আমি খেলাটাকে দেখি। আমি মাঠে গিয়ে আমার ব্র্যান্ডের ক্রিকেটই খেলব। একটি দল হিসেবে আমরা আমাদের ব্র্যান্ডকে তুলে ধরব। ভবিষ্যতে যা কিছুই (অধিনায়কত্ব) আসুক না কেন, সেটা তখনই দেখা যাবে।’এছাড়া মারকুটে ব্যাটার সাঞ্জু স্যামসন এবং পেসার উমরান মালিককে না খেলানো নিয়েও মুখ খুলেছেন হার্দিক, ‘যদি সিরিজটা তিন ম্যাচের না হয়ে আরেকটু বড় হত তাহলে আমরা তাদেরকে খেলাতে পারতাম। আমি ছোট সিরিজের মধ্যে বারবার পরিবর্তন আনা পছন্দ করি না এবং সামনের দিনগুলোতেও আমার এগিয়ে চলার পদ্ধতি এরকমই হবে।’তবে ভারতের মত দলে বেঞ্চে বসে থাকার কষ্টের ব্যাপারেও ধারণা আছে হার্দিকের। সেসব কিছু সামলানোর ব্যাপারেও নিজেকে যথেষ্ট দক্ষই মনে করেন তিনি, ‘যখন ক্রিকেটাররা নিরাপদ অনুভব করবে সেখানে এসব বিষয় সামলানো খুব কঠিন কোনো কাজ নয়। আমি সকল ক্রিকেটারের সাথে দারুণ একটি সম্পর্ক ধরে রাখার চেষ্টা করি এবং ক্রিকেটাররাও এই বিষয়ে অবগত আছে। টিম কম্বিনেশনের কারণেই তাদেরকে (স্যামসন ও উমরান) খেলাতে পারিনি।’  হার্দিক পান্ডিয়া। ছবিঃ গেটি ইমেজসনিজেকে সবার জন্য উন্মুক্ত দাবি করে হার্দিক বলেন, ‘আমি ক্রিকেটারবান্ধব এবং কেউ যদি ভিন্ন কোনো কিছু ভেবে থাকে তাহলে আমার দরজা সবসময়ই খোলা। যে কেউ এসে আমার সাথে আলাপ করতে পারে। আমি তাদের অনুভূতির বিষয়টি বুঝতে পারি। স্যামসনের বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক। তাকে আমাদের খেলাতেই হত কিন্তু কৌশলগত কিছু কারণে তাকে খেলাতে পারলাম না।’হার্দিক আরও বলেন, ‘ক্রিকেটাররা যদি খারাপ অনুভব করে তারা আমার সাথে অথবা কোচের সাথে আলাপ করতে পারে। সামনের দিনগুলোতে যদি আমি অধিনায়ক থাকি আশা করি এ বিষয় নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। আমার আচার-আচরণ, স্বভাব, গতি-প্রকৃতি সবকিছুই সকলের প্রতি পূর্ণ সমর্থন নির্দেশ করে।’বিশ্বকাপের পরপরই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি করে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে বর্তমানে নিউজিল্যান্ডে অবস্থান করছে ভারত। টি-টোয়েন্টি সিরিজ ১-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে ভারত।বাংলাদেশের ক্রিকেটসহ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ধরনের খবর সবার আগে পেতে এখানে ক্লিক করে সাবস্ক্রাইব করুন desh71 Videos চ্যানেলটি। বল বাই বল লাইভ স্কোর পেতে আর নয় বিদেশি অ্যাপ। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাম্প্রতিক খবর এবং বল বাই বল লাইভ স্কোর আপনার মুঠোফোনে পেতে এখনি প্লে-স্টোর থেকে desh71 সার্চ করে ডাউনলোড করুন বাংলাদেশের নাম্বার ওয়ান ক্রিকেট অ্যাপটি। অথবা ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন এখানে। ভালো লাগলে অবশ্যই রেটিং দিয়ে উৎসাহী করুন।