Saturday , 10 December 2022

আগের ছবি দিয়ে কী বোঝাতে চাইছে, সে নিজেই ভালো জানে: শাকিব

২০১৮ সালের শুরুর দিকে ‘নাকাব’ সিনেমা’র শুটিং করছিলাম। কপিরাইট ইস্যু নিয়ে তিন সপ্তাহ শুটিং বন্ধ থাকায় আমিও অবসর পাই। সেই সময়ে ব্যক্তিজীবন নিয়ে আমি বেশ টানাপোড়েনে ছিলাম। তাই আজমির শরিফ ঘুরে আসার পরিকল্পনা করি।

কথাগুলো বলেছেন ঢাকাই সিনেমা’র সুপারস্টার শাকিব খান। তিনি আরো বলেন, বুবলীর সঙ্গে যেহেতু তখন যোগাযোগ হতো, একটা স’ম্পর্ক ছিল, সে আমাকে অনুরোধ করেছিল তাকে নিয়ে যেতে। যেহেতু আজমির শরিফে যাওয়ার পথে আগ্রার তাজমহল, সেই সুযোগে সেখানেও ঘুরে আসা হয়। ছবিটি তখনই তোলা, তা-ও প্রায় বছর পাঁচেক হবে। পাঁচ বছর আগের এই ছবি পোস্ট করে বুবলী কী’ বোঝাতে চাইছে, তা সে নিজেই ভালো জানে।

সম্প্রতি শাকিব খানের সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেছেন বুবলী। তিনি জানান, তাজমহলে ঘুরতে দিয়ে ছবিটি তুলেছিলেন। যে জায়গায় দাঁড়িয়ে আছেন তারা, এটি সম্রাট শাহ’জাহান ও মমতাজের শোবার ঘর। মূলত সেই ছবিটির বিষয়েই এক সাক্ষাৎকারে উল্লেখিত মন্তব্য করেছেন করেছেন শাকিব খান।

সোমবার (২১ নভেম্বর) রাতে শাকিব খানের সঙ্গে তাজমহলে ঘুরতে গিয়ে তোলা ছবিটি পোস্ট করেছেন বুবলী। এর ক্যাপশনে বুবলী লেখেন, যে জায়গায় আম’রা দাঁড়িয়ে আছি, এটি সম্রাট শাহ’জাহান ও মমতাজের শোবার ঘর। বিয়ের পর শুটিংয়ে দুজনেই খুব ব্যস্ত ছিলাম কিন্তু তার ফাঁকেও খুব অল্প সময়ের জন্য ভা’রতের উত্তর প্রদেশে আগ্রায় অবস্থিত ভালোবাসার সবচেয়ে বড় নিদর্শন তাজমহল দেখাতে নিয়ে গিয়েছিলেন উনি আমাকে। খুব প্রিয় একটি ছবি আমা’র।

এছাড়া কয়েকদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে বুবলী জানিয়েছেন, জন্ম’দিনে শাকিব তাকে ডায়মন্ডের নাকফুল উপহার দিয়েছেন। সেটি তার জীবনের সেরা উপহার বলেও জানান। যদিও গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শাকিব খান দাবি করেছেন, বুবলীকে তিনি নাকফুল দেননি। তার সঙ্গে যোগাযোগও নেই।

এদিকে বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) বিকেলে গণমাধ্যমে শাকিবের বক্তব্যের বিষয়ে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বুবলী। নাকফুল দেওয়ার বিষয়টি শাকিব অস্বীকার করছে দেখে বেশ অ’বাক হয়েছেন এই চিত্রনায়িকা।

তিনি বলেন, শাকিবের বিবৃতি আমা’র জন্যে অ’পমানজনক। শাকিব কেন অস্বীকার করল তা মা’থায় আসছে না। উপহারের বিষয়টি তো চার-পাঁচ দিন আগের, এতদিন পরে এসে কেন অস্বীকার করল, কী’ ভেবে, কী’ পরিকল্পনা করে এসব বলল, বুঝলাম না।

গেল ২৭ সেপ্টেম্বর বেবি বাম্পের ছবি প্রকাশ করে সামাজিকমাধ্যমে হইচই ফেলে দেন বুবলী। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর সকালে এই অ’ভিনেত্রী জানান, তার সন্তানের পিতা শাকিব খান। এর কিছুক্ষণ পরই সন্তানের স্বীকৃতি দিয়ে শাকিব জানান শেহ’জাদ খান বীর তার পুত্র।

এরপর বুবলী জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের ২০ জুলাই শাকিবের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। ২০২০ সালের ২১ মা’র্চ তাদের সন্তান শেহ’জাদের জন্ম হয়।

কিন্তু অনুমতি ছাড়াই বুবলী সন্তান বীরকে মিডিয়ার সামনে আনাতে বেশ ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন শাকিব খান। কিন্তু ধারণা করা হচ্ছে, সেই খবর সামনে আসার আগেই বিচ্ছেদের পথ বেছে নিয়েছেন তারা। শাকিবও সেরকম ইঙ্গিতও দিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, একটা কথা নিশ্চিত করে বলতে চাই, অ’পু বিশ্বা’স ও বুবলী দুজনেই এখন আমা’র কাছে অ’তীত। তাদের সঙ্গে কোনো অবস্থায় আমা’র স’ম্পর্ক জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই। অ’তীত মানে তারা অ’তীতই। তারা আমা’র দুই সন্তানের মা, সন্তানের মা হিসেবে তাদের প্রতি আমা’র যে সম্মান ও স’ম্পর্কটা থাকা দরকার, স্রেফ সেটুকুই থাকবে।