তেলের মূল্যসীমা নিয়ে পুতিনের সতর্কবার্তা |

বিশকেকে ইএইইউ শীর্ষ সম্মেলনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। (ছবি : সের্গেই ববিলিওভ/স্পুটনিক/এএফপি)

রাশিয়ার তেল রপ্তানিতে পশ্চিমাদের আরোপিত মূল্যসীমা রাশিয়ার পরিবর্তে এই পদক্ষেপ গ্রহণকারী দেশগুলোকেই প্রভাবিত করবে এবং রাশিয়ার তেলের আয়ের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না। শুক্রবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সতর্ক করে দিয়ে একথা জানিয়েছেন। রাশিয়া বর্তমানে এই মূল্যসীমার সমান দামে অপরিশোধিত তেল বিক্রি করছে বলেও জানান তিনি।

এ ছাড়াও কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেকে ইউরেশিয়ান ইকোনমিক ইউনিয়নের (ইএইইউ) শীর্ষ সম্মেলন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে পুতিন বলেছেন, ‘আমরা কোনো অবস্থাতেই লোকসান সহ্য করব না।

বিজ্ঞাপন

আরো পড়ুন : রাশিয়ার তেল রপ্তানি নিয়ন্ত্রণ কতটা সম্ভব?

ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জি৭ গোষ্ঠী এবং অস্ট্রেলিয়া ৫ ডিসেম্বর রাশিয়ান সামুদ্রিক তেলের মূল্যসীমা ব্যারেল প্রতি ৬০ মার্কিন ডলার নির্ধারণ করে দেয়। এ ছাড়াও এই মূল্যসীমা না মানলে তারা পশ্চিমা কম্পানিগুলোকে রাশিয়ান তেলের চালানের জন্য বীমা এবং অন্যান্য পরিষেবা প্রদান করতে নিষেধ করেছে।

এদিকে পুতিন বলেছেন, রাশিয়া মূল্যসীমা সমর্থনকারী দেশগুলোর কাছে তেল বিক্রি করার পরিকল্পনা করছে না। এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য আগামী দিনে তার আদেশে নির্দিষ্ট পদক্ষেপ সম্পর্কে জানানো হবে বলে জানা গেছে।

পুতিনের মতে, রাশিয়া প্রয়োজনে তেল উৎপাদন কমানোর বিষয়টি বিবেচনা করবে। যদিও এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তিনি বলেছেন, ‘একটি উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে আমাদের সঙ্গে ওপেক প্লাসের একটি চুক্তি রয়েছে, প্রয়োজনে আমরা অতিরিক্ত কিছু চিন্তা করব। ‘

রাশিয়ান এই নেতার মতে, মূল্যসীমা প্রবর্তন অনিবার্যভাবে তেল খাতে বিনিয়োগ হ্রাস করবে এবং বিশ্বব্যাপী অপরিশোধিত তেলের মূল্য আকাশচুম্বী করবে।

সূত্র : আরটি


-Kalerkantho