সেরার তালিকায় কে এগিয়ে

সেরার তালিকায় কে এগিয়ে

বিনোদন ডেস্ক :  তিন খান আমির, সালমান, শাহরুখ। এই তিনজন বলিউডের এক মায়ের তিন সন্তান। কোন সন্তান প্রিয়? এমন প্রশ্নে মা যেমন বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন। ঠিক তেমনি খান ভক্তদের কাছেও এমন প্রশ্ন বিব্রতকর।সারা বিশ্বে অসংখ্য ভক্ত জুটিয়েছেন, অগণিত ছবি উপহার দিয়েছেন। বলিউডের প্রায় সিংহভাগ জুড়েই তাঁদের পদচারনা।

তিন খানকে নিয়ে বেরসিক ‘রেকর্ড বুক’ সেরা খান নির্বাচিত করেছে। বিগত ১০ বছরে কোন খানের ছবি সবচেয়ে বেশি দেখা হয়েছে এই নিয়ে সম্প্রতি একটি পরিসংখ্যান বেরিয়েছে। দেখা যাক  কে পরিসংখ্যানে সেরা-

সালমান খান- ২০১৬ সালে মুক্তি পাওয়া সালমানের সুলতান দেখেছে ৩ কোটি ২০ লাখ ৮৫ হাজার দর্শক। বজরঙ্গি ভাইজান (২০১৬) ৩ কোটি ৫৪ লাখ ১৭ হাজার জন। এক থা টাইগার (২০১৪) ২ কোটি ৪৭ লাখ ৩৯ হাজার জন।‘কিক’(২০১৪) ২ কোটি ৪১ লাখ ৯২ হজার জন।  ‘দাবাং’ (২০১০) ২ কোটি ৫০ লাখ ৮৬ হাজার জন। ‘ভির’ (২০১০) ৭৩ লাখ ৪৭ হাজার জন। লন্ডন ড্রিমস (২০০৯) ৪৫ লাখ ৪০ হাজার জন। ‘ম্যা অর মিসেসে খান্না’ (২০০৯) ১২ লাখ ৪৪ হাজার জন। যুবরাজ (২০০৮) ৩৫ লাখ ৯৮ হজার জন।‘গড তুসি গ্রেট হো’ (২০০৮) ২৭ লাখ ৯৬ হাজার জন।

শাহরুখ খান-জাব হ্যারি মেট সেজাল (২০১৭) ৫৫ লাখ ৪৯ হাজার জন।  ‘ডিয়ার জিন্দেগী’(২০১৬) ৫৯ লাখ ৯১ হাজার জন।  ফ্যান (২০১৬) ৮৪ লাখ ৭১ হাজার জন। ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ (২০১৩) ২ কোটি ৫২ লাখ ২৭ হাজার জন। ‘বিল্লু’ (২০০৯) ৪২ লাখ ৬ হাজার জন।

আমির খান- ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত আমিরের ‘সিক্রেট সুপারস্টার’ দেখেছে ৫০ লাখ ৮৭ হাজার দর্শক। ‘দঙ্গল’(২০১৬) ৩ কোটি ৬৯ লাক ৯৬ হাজার জন। ‘পিকে’ (২০১৪) ৩ কোটি ৫০ লাখ ৬১ হাজার জন। ‘ধুম ৩’ (২০০৩) ২ কোটি ৯৭ লাখ ৯৩ হাজার জন। ‘ধোবি ঘাট’ (২০১১) ১৫ লাখ ৪৮ হাজার জন। ‘থ্রি ইডিয়টস’ (২০০৯) ৩ কোটি ১৭ লাখ ৮৫ হাজার জন। এই ছবিগুলোর মধ্যে আমিরের রয়েছে ৬টি, সালমানের ১০টি এবং শাহরুখ খানের ৫টি।